ফরাসি পন্য বর্জনের আহ্বান জানিয়েছে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সুনামগঞ্জ জেলা

প্রকাশিত: ১২:৩১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২০

ফরাসি পন্য বর্জনের আহ্বান জানিয়েছে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সুনামগঞ্জ জেলা

 

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁর বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে ফরসি পণ্য বর্জনের আহবান জানিয়েছেন
বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সম্মানিত সভাপতি ও তেঘরিয়া মাদ্রাসার মুহতামিম শায়খ মাওলানা আনোয়ার হোসাইন, সহ সভাপতি মাওলানা আব্দুল ওয়াজিদ সাহেব, মাওলানা মুসা মুল্লা সাহেব, সেক্রেটারি জামেয়া দারুল হাদীস হাসনাবাদ এর ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম মাওলানা আব্দুল কাদির সাহেব, সহ বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সুনামগঞ্জ জেলা শাখার অন্যান্য দায়িত্বশীলবৃন্দ।

ইমানুয়েল ম্যাখোঁর ইসলামবিদ্বেষী মনোভাবের তীব্র সমালোচনা করে মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তারা এ আহবান জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশে ফরাসি পণ্য, বিশেষত খাদ্যপণ্য বয়কটের আহ্বান জানানো হয়েছে। এর পাশাপাশি মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশের বিষয়ে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শনের আহ্বান জানানো হয়েছে। অবিলম্বে এসব বন্ধ হওয়া উচিত।

উল্লেখ্য, মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের জেরে এক মুসলিম উগ্রবাদী কর্তৃক একজন ইতিহাস শিক্ষককে হত্যার পর থেকেই উত্তপ্ত ফ্রান্স। ওই ঘটনার পর অন্তত ৫০টি মসজিদ ও মুসলিম-অধ্যুষিত এলাকায় ভয়াবহ অভিযান চালায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তার এ ঘোষণায় মুসলিম বিশ্বে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। ইসলামের প্রতি এমন মানসিকতার জন্য ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার বলে মন্তব্য করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। মুসলিম দেশগুলোতে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেওয়া হয়।

বিভিন্ন দেশে জনগণকে ফরাসি পণ্য চিহ্নিত করার উপায় বাতলে দিচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাক্টিভিস্টরা। বর্জনের ডাকে সাড়া দিয়ে ইতোমধ্যেই কাতার ও কুয়েতের বিভিন্ন মার্কেটের সেলফ থেকে ফরাসি পণ্য সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ফরাসি পণ্য বর্জনের দাবিতে টুইটার হ্যাশট্যাগ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সৌদি আরবসহ এ অঞ্চলের অন্যান্য দেশেও।

এমন পরিস্থিতিতে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সুনামগঞ্জ জেলার পক্ষ থেকে বাংলাদেশে ফরাসি পণ্য ও লাফার্জ সিমেন্ট, গ্যাস ইত্যাদি কোম্পানিগুলো বর্জন ও বন্ধের আহ্বান জানানো হয়।

এই সংবাদটি 38 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ